Ad
Ad
Ad
জামদানি শাড়ি - অজানা তথ্য

বালুচরী শাড়ির অজানা ১০ টি তথ্য

Introduction 

বালুচরী পশ্চিমবঙ্গের প্রসিদ্ধ শাড়ি; ভারতের ভৌগোলিক স্বীকৃতি এবং বয়নশৈলীতে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পকর্ম৷ আঁচলে বিবিধ পৌরাণিক ও অন্যান্য নকশা-বোনা এই শাড়ি আভিজাত্যের প্রতীক হিসাবে গণ্য৷

বালুচরী পশ্চিমবঙ্গের প্রসিদ্ধ শাড়ি

১/বালুচরীর জন্ম মুর্শিদাবাদ জেলার জিয়াগঞ্জের নিকটবর্তী অধুনালুপ্ত বালুচর নামক স্থানে।মুর্শিদাবাদ জেলার ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট ও রেশমশিল্প গবেষক নিত্যগোপাল মুখোপাধ্যায়ের মতে বহরমপুরের কয়েক মাইল উত্তরে ভাগীরথীর তীরে অবস্থিত ছিল বালুচর;

২/বালুচরী শাড়িতে রেশম সুতো দিয়ে পৌরানিক গীতিকথা, দ্রোপদীর স্বয়ংবর সভা (অর্জুনের লক্ষ্যভেদ) তৈরী করা হয়েছে;

৩/বালুচরীর জন্মকাল অষ্টাদশ শতাব্দীর প্রথম ভাগ;মুর্শিদ কুলি খাঁ ১৭০৪ সালে সুবে বাংলার রাজধানী ঢাকা থেকে মকসুদাবাদে স্থানান্তরিত করার পর; তার বেগমদের জন্য নতুন শাড়ি তৈরীর হুকুম দেন বালুচরের তাঁতশিল্পীদের। তারা যে নতুন শাড়ি সৃষ্টি করেন তাই বালুচরী নামে খ্যাত হয়।

৪/বালুচরী দৈর্ঘ্যে ১৫ ফুট লম্বা ও ৪২ ইঞ্চি চওড়া। আঁচলের দৈর্ঘ্য ২৪ থেকে ৩২ ইঞ্চি;

৫/ গবেষিকা চিত্রা দেব বালুচরীর অলংকরণকে চার ভাগে ভাগ করেছেন; যথা চিত্র, কল্কা, পাড় ও বুটি। তার মতে চিত্র অংশের নকশা অন্যান্য শাড়ীতে দেখা যায় না;

৬/এই শাড়ি মূলতঃ রেশম শাড়ি, যদিও পরে তুলো থেকে তাঁতের বালুচরী ও আজকাল বাঁশ; কলা ইত্যাদি গাছ থেকে পাওয়া সুতো থেকে জৈব বালুচরীও বানানো হয়েছে;

৭/ একটা শাড়ি বানাতে দুজন কারিগরের দুজন কারিগরের দরকার হয় ; একটা শাড়ি বানাতে দুজন কারিগরের এক সপ্তাহ বা বেশি সময় লাগে৷

৮/ এই শিল্প সামপ্রতিককালে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এবং কিছু ফরাসি জ্যাকার্ড ধরনের তাঁতের সাহায্যে পুনর্জাগরিত করা হয়েছে।এবং ইউরোপ এর বিভিন্ন দেশ এ রপ্তানি হচ্ছে।

৯/ ২০১৩ সালের দীপাবলির রাতে বালুচরি শাড়িতে সেজে; পোর্ট অব স্পেনে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের বারান্দায় একটি একটি করে দীপ জ্বালিয়েছেন ত্রিনিদাদের ফার্স্ট লেডি ভারতীয় বংশোদ্ভূত ৪২ বছরের প্রেসিডেন্ট পত্নী রিমা হরিসিংহ কারমোনা। বিশ্ব মিডিয়াতে ফার্স্ট লেডির সে ছবির কারণে বালুচরি যেন নতুন করে জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করে।

১০/বালুচরি এর সবচেয়ে ভাল শিল্পি বলা হয় দুবরাজ দাস কে।

তথসুত্রঃ উইকিপীডিয়া

Author:

Niloy Kundu Bijoy

BUFT

Team Member Of (A.1) Team

You may also read

আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ লাইক করুন। এবং জানতে থাকুন নতুন ও আশ্চর্যজনক তথ্যসমূহ।